আঙিনা

প্রবাদ প্রবচন

১৬. হালের হেলে ধ’রো না
পতির ছেলে ধ’রো না

হালের গরু,অর্থাৎ হেলে গরু একবার ধরলে যেমন লাঙল আর ছাড়া যায় না, তেমনি প্রসূতি মায়ের (প’তি অর্থে পোয়াতি) বাচ্চা একবার ধরলে আর ছাড়তে পাবে না,কারণ মা তার বাচ্চাকে ধরিয়ে দিয়ে তার যাবতীয় কাজ সারতে থাকবে।

১৭.লাখ টাকায় বামুন ভিখারী
চার টাকায় চাঁড়াল
চৌধুরী

ব্রাহ্মণ, প্রভূত ধনী হয়েও দারিদ্র্যের চেহারায় থাকেন;কিন্তু,চন্ডালের সামান্য অর্থ হলেই সে নিজেকে ‘কেষ্টুবিষ্টু’ অর্থাৎ ‘চৌধুরী’ ভাবতে থাকে।

 

১৮.বেটির ছেলে দেখতে ভাল
বেটার ছেলে ঘর আলো

মেয়ের ছেলে যতই সুন্দর হোক,সে দুদিনের অতিথি।তারপর চ’লে যায়।কিন্তু ছেলের ছেলে চিরকাল আমার ঘর আলো ক’রে থাকবে।

১৯.সতী যায় স্রোতে ভেসে
অসতী যায় রথে ব’সে

সৎ চরিত্রের যে,সে দুর্দশায় পড়ে; আর অসৎ চরিত্রের যে,সে-ই রথে চ’ড়ে যায়

২০.উই ইঁদুর কুজন
ঘর ভাঙে তিনজন

পরিবারের মধ্যে কুচক্রী মানুষের ভূমিকা, বাড়ি ধ্বসিয়ে দিতে উই আর ইঁদুরের সমতুল

২১. ’নিম নিষিন্দে যেথা,
মানুষ কি মরে সেথা?’

নিম,নিষিন্দা গাছের হাওয়া স্বাস্থ্যকর ও রোগনাশক।সূতরাং অকালমৃত্যু রোধ করে

২২.তালগাছের আড়াই হাত

তালগাছকে একহাত লম্বা ধ’রে, তার আড়াইগুণ হিসেব করা।অর্থাৎ খুউব লম্বা কিছু বোঝাতে

২৩.মেরেও চায়
ফিরেও চায়
পেটের বাছা,
বাড়ির গাছা।

বাড়ির গাছ আর পেটের সন্তান, সবসময়েই উপকারে লাগে

২৪. ছেঁদো কথা,মাথার জটা
খুলতে গেলে বিষম ল্যাঠা

মাথার জটা যেমন সহজে খোলা যায় না,তেমনই অস্পষ্ট কথার অর্থও সহজে উদ্ধার করা যায় না

২৫.চাল নেই চূলো
ঢেঁকী নেই কুলো

চালচুলোহীন হাভাতে

২৬. দক্ষিণ দুয়ারী ঘরের রাজা
পূব দুয়ারী তার প্রজা
পশ্চিম দুয়ারীর মুখে ছাই
উত্তর দুয়ারীর খাজনা নাই।

দক্ষিণ দুয়ারী ঘর আলোবাতাসে ঝলমল,তাই সে ঘরের রাজা। পূবদুয়ারী ঘরে তুলনায় কম আলোবাতাস আসে।তাই সে ঘরের প্রজা।পশ্চিমদুয়ারী ঘরের দুপুরের পর থেকেই রোদের তাপে টেকা যায় না। আলোবাতাস কম আর বৃষ্টির ছাটে ঘর ভিজে যায়।আর উত্তর দুয়ারী ঘরেরকথিত আছে, নিকৃষ্ট অবস্থান ব’লে উত্তর দুয়ারী ঘরের লোকের খাজনা নেওয়া হত না।

২৭. চিনি খেয়ে মিনিমিনি

ধনীঘরের অতিরিক্ত আদরে,সুখাদ্যে লালিত দুর্বল আলপাতালি সন্তান

২৮.লক্ষ্মীছাড়ার ঝক্কি বড়

লক্ষ্মীছাড়া লোকের হাজারো উৎপাত

২৯.জল জল বৃষ্টির জল
বল বল বাহুর বল

বৃষ্টির জল যেমন অমোঘ,তেমনই নিজবাহুর বলই শেষ কথা

৩০.শ্বশুরবাড়ী মথুরাপুরী
তিনদিন পর ঝাঁটার বাড়ি

শ্বশুরবাড়ী যত মনোরমই হোক না কেন, বেশিদিন থাকলেই অসম্মান

 

(ক্রমশ)

Leave a Reply